২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | শুক্রবার, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

শাশুড়িকে ধর্ষণ করে আত্মহত্যার চেষ্টা মেয়ের জামাইয়ের

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৬, ২০২০, ১২:২৪ অপরাহ্ণ



শাশুড়িকে ধর্ষণ করে আত্মহত্যার চেষ্টা মেয়ের জামাইয়ের। ছবি প্রতীকী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
পঞ্চাশ বছর বয়সী বিধবা এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তারই মেয়ের জামাইয়ের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় নির্যাতিতা ওই নারী থানায় এফআইআর দায়ের করলে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন অভিযুক্ত। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার ভারতের তামিলনাড়ুর কুড্ডালোর জেলার পানরুতি গ্রামে। ঘটনার পর ওই নারী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্তের বাড়ি কুড্ডালোরের একই গ্রামে। রোববার শ্বশুরবাড়িতে এসে বিধবা শাশুড়িকে ধর্ষণ করে ৩৯ বছর বয়সী ওই যুবক। সেসময় বাড়িতে আর কেউ ছিল না। নির্যাতনের কারণে ওই নারী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কুড্ডালোর গভর্মেন্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। তার গোপনাঙ্গে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। হাসপাতাল থেকেই থানায় ফোন করা হয়েছিল। এর পর পুলিশ এসে ধর্ষিতার বক্তব্য রেকর্ড করে। তার ভিত্তিতে এফআইআর দায়ের হয়েছে।

এদিকে, এফআইআর দায়েরের কথা শুনে পুলিশের ভয়ে নিজের বাড়িতেই আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ওই নারীর মেয়ের জামাই। প্রতিবেশীদের চোখে পড়ে যাওয়ায় তারাই তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। তাকেও একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জেলা পুলিশ সূত্রে খবর, পানরুতির মহিলা পুলিশ থানা থেকে একটি টিম হাসপাতালে গিয়েছিল। ওই নারীর সাথে কথা বলে প্রাথমিক তদন্ত করেছে। আইপিসির ৩৭৬ ধারায় (ধর্ষণ) একটি মামলা রুজু হয়েছে।

এদিকে, রোববার দিল্লির কাছে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ২৫ বছর বয়সী এক যুবতী। হরিয়ানার গুরুগ্রামের ওই যুবতীকে চারজন মিলে গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। তার মাথাতে গুরুতর আঘাত রয়েছে।

সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসিপি), ডিএলএফ, করণ গোয়েল জানান, চার অভিযুক্তের একজনের সাথে শনিবার রাতে গুরগাঁওয়ের সিকান্দারপুর মেট্রো স্টেশনের সামনে দেখা হয়েছিল ওই যুবতীর। তাকে অফিসে নিয়ে গিয়ে জোর করে ধর্ষণ করা হয়। বাকি তিনজনও ওই অফিসে ছিল। যুবতী বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে ভারী কিছু দিয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেয়া হয়। তাকে গুরগাঁওয়ের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে চারজনকেই পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

এনসিআরবি’র পেশ করা রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৯ সালে গোটা ভারতে ৩২ হাজার ৩৩টি ধর্ষণের মামলা হয়েছে। শতাংশের নিরিখে বিগত বছরে নারীদের বিরুদ্ধে যত অপরাধের ঘটনা ঘটেছে, তার ৭.৩ শতাংশ ধর্ষণ মামলা। ২০১৮ সালে ভারতে ধর্ষণের মামলার সংখ্যা ছিল ৩৩ হাজার ৩৫৬। ২০১৭ সালে নথিভুক্ত ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছিল ৩২ হাজার ৫৫৯টি।

জাতীয় অপরাধ রেকর্ডস ব্যুরোর এই ডেটায় পরিষ্কার, মেয়েদের বিরুদ্ধে অপরাধের ঘটনা উল্লেখযোগ্য হারে বাড়লেও ভারতে ধর্ষণের মামলা তার আগের দু’টি বছরের তুলনায় কমেছে।

সূত্র : এই সময়

Leave a Reply