৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | শনিবার, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

মুন্সিগঞ্জের দিঘীরপাড় বাজারে পর্যাপ্ত ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা

প্রকাশিতঃ জুলাই ২১, ২০২০, ১:৩১ অপরাহ্ণ | শেষ আপডেটঃ জুলাই ২১, ২০২০, ১:৩৪ অপরাহ্ণ



 

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ি উপজেলার দিঘীরপাড় বাজারে সামান্য বৃষ্টি হলেই সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা,নেই পর্যাপ্ত ড্রেনেজ ব্যবস্থা।

মঙ্গলবার সকালে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ইতিহাস সমৃদ্ধ মুন্সিগঞ্জ জেলার বৃহত্তম দিঘীরপাড় বাজারের ১নং সরু গলিসহ কয়েকটি শাখা গলিতে বৃষ্টির পানি জমে কর্দমা ও জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।এতে করে দিঘীরপাড় বাজার ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের নানান সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।

বর্তমানে দিঘীরপাড় বাজারে প্রায় সাড়ে ৭ শতাধিক দোকান রয়েছে। ৩টি সরু গলি ও ৭-৮টি শাখা গলির মধ্যে মাঝখানের সরু গলিতে একটি ড্রেনেজ ব্যবস্থা থাকলেও সে ড্রেনটি ময়লা আবর্জনায় বদ্ধ হয়ে মশার প্রকোপ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে ডেঙ্গু মশার বংশ বিস্তারের আশঙ্কা করছেন বাজারের ব্যবসায়ীরা।সবচেয়ে বেশি নাজুক অবস্থায় রয়েছে বাজারের পূর্ব পাশের ১নং মসজিদ গলিটি। ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সমান্য বৃষ্টি হলেই পানি ও কাদায় একাকার হয়ে যায়।

উল্লেখ্য – প্রতি বছর এই বাজার হতে প্রায় ১ থেকে দেড় কোটি টাকা রাজস্ব আয় করে থাকেন সরকার। কিন্তু বাজার কমিটির একটু সুদৃষ্টির অভাবে ড্রেনেজ ব্যবস্থা থমকে আছে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা।

এ বিষয়ে দিঘীরপাড় বাজারের মদীনা রাইস মিল-এর মালিক শাহাদাত হোসেন ও মুদি দোকানী আব্দুল কুদ্দুস সরদার জানান, একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তার দু’পাশে পানি জমে কাদায় একাকার হয়ে যায়। এতে করে আমাদের রোগ-বালাইসহ বিভিন্ন সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এই গলিতে একটি ড্রেনেজ-এর ব্যবস্থা করা হলে সব সমস্যার সমাধানও হবে পাশাপাশি বাজারের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে। তাই আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোরালো দাবি জানাচ্ছি যে এই ১নং মসজিদ গলিতে যেনো একটি ড্রেনেজের ব্যবস্থা করা হয়।

এবিষয়ে বাজার কমিটির সভাপতি ও দিঘীরপাড় ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম হালদার জানান,দিঘীরপাড় বাজারের পূর্বপাশের মসজিদ গলিতে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকার কারণে ড্রেনেজ ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাচ্ছে না। এখন বর্ষা মৌসুম,বর্ষা মৌসুম শেষে ভেবেচিন্তে দেখবো কর্দমা ও জলাবদ্ধতা নিরসনে কি করণীয়।

এব্যপারে টঙ্গিবাড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মৎ হাসিনা আক্তার জানান, এবিষয়ে এর আগে আমাকে কেউ অবগত করেনি।আপনার মাধ্যমে জানতে পারলাম। বাজার কমিটির সাথে আলোচনা সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply