২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | শুক্রবার, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

ভারতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের জেরে দলিত তরুণীর মৃত্যু

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১, ২০২০, ১২:১৪ অপরাহ্ণ



ভারতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের জেরে দলিত তরুণীর মৃত্যু। ছবি প্রতীকী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ভারতের উত্তর প্রদেশের লক্ষনৌর অদূরে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় জেরে এক দলিত নারীর মৃত্যু হয়েছে।

পুলিশ জানান, গত বুধবার লালসার শিকার ২২ বছরের ওই তরুণী যখন বাড়ি ফেরেন তখন তার দেহে একাধিক আঘাতের চিহ্ন। ঠিক মতো দাঁড়ানোরও ক্ষমতা ছিল না। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় তার।

বেসরকারি একটি সংস্থায় কাজ করা ওই তরুণীর মা মা জানান, সকালে কাজে যাবে বলে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল। তার পর থেকে মোবাইলেও পাওয়া যায়নি। সন্ধ্যা হয়ে গেলেও মেয়ে বাড়ি ফিরছে না দেখে পুলিশের দ্বারস্থ হন তারা।

কাজে যাওয়ার পথেই দলিত তরুণীকে অপহরণ করা হয় বলে অভিযোগ করে তার মা বলন, তারা তাদের মেয়েকে রিক্সা করে বাড়ি ফিরতে দেখেন তারা। তখন সে না পারছে হাঁটতে, না পারছে ঠিক মতো কথা বলতে। তার মা বলেছেন, ‘আমার মেয়ে কাঁদছিল আর বলছিল, ‘আমাকে বাঁচাও, আমি মরতে চাই না’।

এর পর তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে লখনৌ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন সেখানকার চিকিৎসা। লখনৌ নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় তার।

ঘটনা নিয়ে বলরামপুরের পুলিশ সুপার রঞ্জন বর্মা বলেন, ‘গিয়স্রি থানায় ঘটনা নিয়ে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। ভুক্তভোগীর তরুণীর পরিবারের লোক জানিয়েছেন মঙ্গলবার মধ্যরাত অবধি বাড়ি ফেরেনি যুবতী। তাকে ফোনেও পাচ্ছিলেন না। পরে যুবতী গভীর রাতে রিক্সা করে বাড়ি ফেরে। তখন তার অবস্থা খুবই খারাপ ছিল। তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, কিন্তু বুধবার স্থানান্তরিত করার সময় পথেই মৃত্যু হয়।’

মেয়েটির পরিবার এই ঘটনার জেরে দুজন যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছে উল্লেখ করে ওই পুলিশ অফিসার বলেছেন, ‘ধর্ষণের পর নির্যাতিতাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গিয়েছিল অভিযুক্তরা। কিন্তু পরিস্থিতি খারাপ হলে তারা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরিবর্তে রিক্সায় চাপিয়ে নির্যাতিতাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়।’

ওই দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি আরও বলেন, তাদের নাম শাহিদ ও সাহিল। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ইউএনবি

Leave a Reply