২৮শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | শনিবার, ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

বন্যাদুর্গতরা সরকারের কাছে চরম উপেক্ষিত : ইসলামী আন্দোলন

প্রকাশিতঃ জুলাই ২২, ২০২০, ৮:০৯ অপরাহ্ণ | শেষ আপডেটঃ জুলাই ২২, ২০২০, ৯:১৬ অপরাহ্ণ




পঁচাত্তর রিপোর্ট
করোনা মহামারির অজুহাতে সরকারের কাছে এখন বন্যাদুর্গতরা চরম উপেক্ষিত বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। বুধবার দলের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান ও মাওলানা গাজী আতাউর রহমান এক যৌথ বিবৃতিতে তারা এ মন্তব্য করেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, কাঙ্খিত সাহায্য সহযোগিতা না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে বন্যাদুর্গতরা। বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ তৎপরতা প্রয়োজনের চেয়ে খুবই অপ্রতুল। তারা বলেন, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় একেবারে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে। মন্ত্রণালয়সহ স্থানীয় প্রশাসনের তৎপরতা এখনও নিতান্তই অপ্রতুল।

বিবৃতিতে নেতারা জরুরি ভিত্তিতে বন্যাকবলিত এলাকায় সরকারি ত্রাণ তৎপরতা পরিচালনা করে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে বাঁচানোর দাবি জানিয়েছেন।

তারা বলেন, করোনা দুর্যোগের মধ্যে বানভাসি লাখ লাখ পরিবারের দুর্ভোগ ও দুর্গতি চরমে উঠেছে। খাদ্যহীন ও আশ্রয়হীন কোটি মানুষের দুর্দশা মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। বন্যায় সহায়-সম্পদ হারিয়ে বানভাসিদের মধ্যে নিদারুণ হাহাকার দেখা দিয়েছে। মহামারি মোকাবেলায় নাকাল সরকারের কাছে বন্যা দুর্গত কোটি মানুষ উপেক্ষিত থেকে যাচ্ছে। অধিকাংশ বন্যা দুর্গত জেলায় ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ মানুষের কাছে খাদ্য, ত্রাণ সামগ্রী, নগদ অর্থ প্রভৃতি কিছুই পৗঁছেনি। লক্ষ লক্ষ পরিবার অর্ধাহারে-অনাহারে দিন পার করছ। বন্যায় ফসলহানির কারণে আগামী দিনগুলো তাদের জন্য দুঃস্বপ্ন হয়ে দেখা দিয়েছে। এমতবাস্থায় সরকারের ত্রাণ তৎপরতার পাশাপাশি সংগঠনের নেতাকর্মীসহ দেশের বিত্তবান ও সাহায্য সংস্থাকেও এগিয়ে আসতে হবে। বিজ্ঞপ্তি।

Leave a Reply