৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | বৃহস্পতিবার, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

নয়নাভিরাম ‘অল ওয়েদার রোডের’ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৮, ২০২০, ৩:০৭ অপরাহ্ণ



নয়নাভিরাম ‘অল ওয়েদার রোডের’ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী। ছবি সংগৃহীত

পঁচাত্তর রিপোর্ট:

বিস্তৃত জলরাশির মধ্যে দিয়ে বয়ে চলা কিশোরগঞ্জের ইটনা-মিঠামইন-অস্টগ্রামের ‘অল ওয়েদার রোড’ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ২৯.৭৩ কিলোমিটারের নয়নাভিরাম সড়কটির উদ্বোধন করেন।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধীনে ৮৭৪.০৮ কোটি টাকা ব্যয়ে সড়কটি নির্মাণ করা হয়। এই সড়কের মাধ্যমে কিশোরগঞ্জের তিন উপজেলা ইটনা, মিঠামইন ও অস্টগ্রাম সংযুক্ত করা হয়েছে।

ইটনা-মিঠামইন-অস্টগ্রাম সড়কটি বিস্তৃত হাওয়ারের জলরাশির মধ্যে দিয়ে ধানু ও লাউলাই নদীর সমান্তরালে ইটনা উপজেলা থেকে মিঠামইন হয়ে অষ্টগ্রামে পৌঁছেছে।

ভবিষ্যতে হাওরের অলওয়েদার সড়কটি সিলেট-ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহাসড়কের সাথে সংযোগ স্থাপন করা হবে। এছাড়া হাওরে ফ্লাইওভার নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে।

এদিকে, উদ্বোধনের আগেই ভ্রমণপিপাসুদের কাছে পর্যটনের নতুন জায়গা হিসেবে স্থান পেয়েছে ইটনা-মিঠামইন-অস্টগ্রামের ‘অল ওয়েদার রোড’। প্রতিদিন হাজারো পর্যটক এসে ভিড় করে এ সড়কে।

হাওরের দিগন্ত বিস্তৃত স্বচ্ছ জলরাশির বুকে নৌকায় ঘুরে বেড়ানো, পানির মাঝে জেগে থাকা দ্বীপের মতো গ্রাম, রাতারগুলের মতো ছোট জলাবন, হাওড়ের তাজা মাছ ভোজন। সব মিলিয়ে একদিনের ভ্রমণের জন্য আদর্শ একটি জায়গা।

জনপ্রিয় পর্যটন স্থানগুলোতে মানুষের ভিড়ে যখন অতিষ্ট, সেক্ষেত্রে এবার প্রকৃতির এ রূপসাগরে যোগ হয়েছে ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম অলওয়েদার সড়ক।

কিশোরগঞ্জের ছয়টি উপজেলার মধ্যে ইটনা, মিঠামইন, অস্টগ্রাম, এবং নিকলী এই চারটিসহ জেলার প্রায় অর্ধেক অংশ হাওরবেষ্টিত, যা অনন্য জলাভূমি বাস্তুতন্ত্র হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। বর্ষার সময় বিস্তীর্ণ হাওয়ার অঞ্চলকে দেখতে অনেকটা সমুদ্রের মতো দেখা যায়।

২০১৬ সালে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তার নিজ জেলা কিশোরগঞ্জে যেয়ে নয়নাভিরাম সড়কটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

সড়কটির উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী মিঠামইন উপজেলা থেকে যুক্ত স্থানীয়দের সাথে মতবিনিময় করেন। স্থানীয় সংসদ সদস্য (এমপি) ও কিশোরগঞ্জ জেলার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা মিঠামইন প্রান্তে উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় জনগণের সাথে মতবিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের পক্ষে এই সড়কটি আপনাদের জন্য একটি উপহার।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমেদ কায়কাউসের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সড়ক পরিবহন সেতু বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম অনুষ্ঠানে সড়কটির ওপর একটি অডিও-ভিডিও পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থানা করে দেখান। ইউএনবি

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর