২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | মঙ্গলবার, ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

দেশে করোনায় আরো ১৭ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২২৭৫

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২০, ২০২০, ৫:১২ অপরাহ্ণ



দেশে করোনায় আরো ১৭ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২২৭৫

পঁচাত্তর রিপোর্ট:
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরো ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এ নিয়ে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৬ হাজার ৩২২ জনে।

এছাড়া, এই সময়ের মধ্যে নতুন করে ২ হাজার ২৭৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হওয়ায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৪৩ হাজার ৪৩৪ জনে পৌঁছেছে।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, দেশের সরকারি ও বেসরকারি ১১৭ ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৫ হাজার ৫৯৫টি এবং পরীক্ষা করা হয়েছে আগের নমুনাসহ ১৫ হাজার ৬০৭টি। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ২৬ লাখ ২২ হাজার ৫৪৯টি।

নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৫৮ শতাংশ। আর মোট পরীক্ষায় এ পর্যন্ত শনাক্ত হার ১৬ দশমিক ৯১ শতাংশ।

নতুন যে ১৭ জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ১১ এবং নারী ছয়জন। এখন পর্যন্ত মোট মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৪ হাজার ৮৬৩ জন বা ৭৬ দশমিক ৯২ শতাংশ এবং নারী ১ হাজার ৪৫৯ জন বা ২৩ দশমিক ০৮ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মোট মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

এদিকে, করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন আরও ১ হাজার ৭০৯ জন। এ নিয়ে দেশে মোট সুস্থ ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৫৮ হাজার ৭৩১ জনে। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮০ দশমকি ৮৩ শতাংশ।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

বিশ্ব পরিস্থিতি

শুক্রবার সকালে জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় (জেএইচইউ) প্রকাশিত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ কোটি ৬৮ লাখ ২২ হাজার ৬০৬ জনে।

এছাড়া, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ১৩ লাখ ৫৯ হাজার ১২০ জনে।

জেএইচইউ’র তথ্য অনুযায়ী, আজ সকাল পর্যন্ত সারা বিশ্বে প্রাণঘাতী এ ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন ৩ কোটি ৬৪ লাখ ৬০ হাজার ১৭৮ ব্যক্তি।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। চলতি বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে মহামারি ঘোষণা করে। এর আগে ২০ জানুয়ারি জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এ পর্যন্ত দেশটিতে ১ কোটি ১৭ লাখ ১৩ হাজার ২৪২ জন করোনায় আক্রান্ত এবং ২ লাখ ৫২ হাজার ৫১৪ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

পৃথিবীর দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারত রয়েছে করোনায় আক্রান্ত দেশের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে। ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল আক্রান্ত দেশের তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকলেও সর্বাধিক মৃতের সংখ্যায় রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে মোট আক্রান্ত ৮৯ লাখ ৫৮ হাজারেরও বেশি মানুষ এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৩১ হাজার ৫৭৮ জন। ব্রাজিলে মোট শনাক্ত রোগী প্রায় ৫৯ লাখ ৮২ হাজার এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬৮ হাজার ৬১ জনের।

রোগী শনাক্তের দিক দিয়ে তালিকার পরবর্তী কয়েকটি দেশ হলো- ফ্রান্স (২১ লাখ ৩৭ হাজারের বেশি), রাশিয়া (প্রায় ২০ লাখ), স্পেন (১৫ লাখ ৪১ হাজারের বেশি) ও যুক্তরাজ্য (প্রায় ১৪ লাখ ৫৭ হাজার)।

মৃতের দিক দিয়ে বিশ্বে চতুর্থ স্থানে আছে মেক্সিকো (১ লাখ ১০৪ জন)। তারপরে যুক্তরাজ্যে ৫৩ হাজার ৮৭০ জন, ইতালিতে ৪৭ হাজার ৮৭০ জন, ফ্রান্সে ৪৭ হাজার ২০১ জন ও ইরানে ৪৩ হাজার ৪১৭ জন মারা গেছেন। সূত্র : ইউএনবি

Leave a Reply