২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | বৃহস্পতিবার, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

দুই মেয়েকে হত্যার পর আত্মহত্যার চেষ্টা বাবার

প্রকাশিতঃ জুলাই ১, ২০২০, ৭:৫২ অপরাহ্ণ | শেষ আপডেটঃ জুলাই ১, ২০২০, ১১:৩০ অপরাহ্ণ



চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
চট্টগ্রামের পটিয়ায় মা হারা দুই মেয়েকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে বাবা মুকুন্দ বড়ুয়া। মঙ্গলবার উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের পূর্ব ভান্ডার গাও এলাকার প্রভাব চন্দ্র বড়ুয়ার বাড়িতে গভীর রাতে মর্মান্তিক হত্যাকাণ্ডের পর বুধবার সাকালে তাদের উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত দুইবোনের মধ্যে একজনের নাম শশী বড়ুয়া টুকু (১৪) ও আরেকজনের নাম নিশু বড়ুয়া (১১)। শশী বড়ুয়া কাশিয়াইশ নয়াহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণী ও নিশু বড়ুা ভান্ডার গাও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।

প্রতিবেশী আশিশ বড়ূয়া ও পটিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. বোরহান উদ্দিন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মুকুন্দ বড়ুয়ার ওই গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে থাকতেন। প্রায় ৫ বছর পূর্বে তার স্ত্রী কনিকা বড়ুয়া মারা যাওয়ার পরে তার ছোট দুই মেয়েকে রেখে একমাত্র ছেলেকে নিয়ে রাজধানীতে বসবাস করতেন। বেসরকারী একটি প্রতিষ্ঠানে চাকুরি করতেন তিনি। করোনাভাইরাস জনিত কারণে সে গত কয়েক মাস ধরে পটিয়া চলে আসে। এদিকে তার বড় ছেলে ঢাকায় বিয়ে করে আলাদা হয়ে যায় বলে তিনি জানান। মুকুন্দ কয়েক দিন ধরে তার দুই মেয়েকে নিজের সাথে নেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। ঘটনার পূর্বে মেয়েদেরকে জন্য নতুন জামা তৈরী করে দেন তিনি। কিছু বাজার করেন এবং জুস নিয়ে আসেন। রাতে মেয়েদেরকে তার সাথে থাকার কথা বলেন। এতে তারা রাজি না হওয়ায় তাদেরকে টাকা দেওয়ার কথা বললে তারা বাবার সাথে থাকতে রাজি হয়।

রাতের কোন এক সময় জুসের সাথে কিছু খাইয়ে বড় মেয়ে পা বেধে গলায় ওরড়া ও ছোট মেয়েকে গামছা পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার পরে নিজে বিষপান করে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহত দুইবোনের লাশ উদ্ধার কওে ময়না তদন্তের জন্য চট্টগ্রামে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন।

পুলিশ পরিদর্শক মো. বোরহান উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ঘটনাটি মানসিক কোন কারণে না অন্য কিছুতে হয়েছে তা পুলিশ ক্ষতিয়ে দেখছে।

Leave a Reply