৬ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | রবিবার, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

করোনা হার্টের ক্ষতি করে, বলছে সমীক্ষা

প্রকাশিতঃ আগস্ট ৪, ২০২০, ৯:০৬ অপরাহ্ণ




পঁচাত্তর রিপোর্ট
করোনাভাইরাস শুধু শ্বাসযন্ত্রের নয়, ক্ষতি করে আরও অনেক অঙ্গের। আর তার মধ্যে অন্যতম হৃদযন্ত্র- সাম্প্রতিক দু’টি সমীক্ষা অন্তত তেমনই বলছে। ‘জেএএমএ কার্ডিওলজি’তে প্রকাশিত দু’টি সমীক্ষায় দাবি, কোভিড-১৯ থেকে সেরে ওঠার পরও হৃদযন্ত্রে এর প্রভাব দীর্ঘদিন থেকে যেতে পারে। শুধু তাই নয়, করোনায় যত মানুষ মারা যান, তাদের অনেকেরই মৃত্যুর কারণ কার্ডিয়াক সংক্রমণ বলেই মনে করছেন গবেষকরা।

সমীক্ষা দু’টি প্রসঙ্গে নিউ ইয়র্কের ‘ওমেন্স হার্ট প্রোগ্রামে’র মেডিক্যাল ডিরেক্টর নিয়েকা গোল্ডবার্গের বক্তব্য, ‘করোনার প্রভাবে হৃদযন্ত্রে প্রদাহ, রক্ত জমাট বাঁধার মতো সমস্যা হতে পারে। সংক্রমণের কারণে হৃদযন্ত্রের পেশি দুর্বল হয়ে যাওয়া এবং প্রদাহ কার্ডিয়াক অ্যারেস্টের পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে। তা ছাড়া, রক্ত জমাট বেঁধে ধমনীতে সংবহনের সমস্যাও হতে পারে।’

ফ্র্যাঙ্কফুর্ট হাসপাতালের ৪৫ থেকে ৫৩ বছর বয়সি ১০০ জনের উপর পরীক্ষা চালিয়েছিল ‘জেএএমএ কার্ডিওলজি’। তারা সকলেই অতি সম্প্রতি করোনা থেকে সেরে উঠেছেন। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ৭৮ শতাংশের ক্ষেত্রেই হৃদযন্ত্রের সমস্যা রয়েছে, আর ৬০ শতাংশের হৃদযন্ত্রে প্রদাহ ধরা পড়েছে। অথচ, এদের মধ্যে ৬৭ শতাংশেরই মৃদু থেকে মাঝারি উপসর্গ ছিল, ফলে বাড়িতে চিকিৎসা করিয়েই সুস্থ হয়ে উঠেছেন তারা। কিন্তু এমআরআই স্ক্যান বলছে, করোনা নিঃশব্দে ক্ষতি করে গিয়েছে হৃদযন্ত্রের।

অধিকাংশ রোগীর ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে মায়োকার্ডিয়াল ইনফ্লেমেশন বা হৃদযন্ত্রের পেশিতে অস্বাভাবিক প্রদাহ, যা পেশিকে দুর্বল করে দেয়। তবে, এই সমীক্ষার যে অনেক সীমাবদ্ধতা রয়েছে, সে কথাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন গোল্ডবার্গ। তার মতে, এই সমীক্ষার স্যাম্পেল সাইজ খুবই ছোট, আরও বেশি মানুষের উপর এই পরীক্ষা চালানো প্রয়োজন। সমীক্ষায় এমন কয়েকটি কেস স্টাডিও রয়েছে, যেখানে করোনায় মৃত ব্যক্তির হৃদযন্ত্রের কোষে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে, কিন্তু হৃদযন্ত্রের পেশিতে কোনও প্রদাহ নেই। সেক্ষেত্রে করোনা থেকে সেরে ওঠার পর হৃদযন্ত্রের এই সমস্যা হয় কি না, সেটাও খতিয়ে দেখা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি। সূত্র: এই সময়

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর